পরিস্থিতি মেনে নিয়ে কাজ করতে হবে

Published on: 10th June, 2020

করোনাকালে অবশ্যই ব্যবসার ক্ষতি হচ্ছে। এপ্রিল মাসে ব্যবসা খানিকটা খারাপ হলেও মে মাসে কিছুটা ভালো হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি সরকারি নির্দেশনা মেনে আমরা ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছি। আমাদের সব পর্যায়ের কর্মীরা কঠোর পরিশ্রম করছেন। আশা করছি, অচিরেই ব্যবসায়িক পরিস্থিতি ভালো হবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করতে হচ্ছে। সবাইকে অফিসে আনা সম্ভব হচ্ছে না। বিধায় আমাদের অনেক কর্মী বাসা থেকে কাজ করছেন। অনলাইনে গুরুত্বপূর্ণ সভা করতে হচ্ছে। মানুষ এখন পণ্য কিনতে অনলাইন মঞ্চ বা প্ল্যাটফর্মকে বেছে নিচ্ছে। সেটিকে মাথায় রেখে আমরা বাসায় পণ্য পৌঁছে দেওয়া বা হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা করেছি।

স্বভাবতই প্রতিষ্ঠানের অর্থের প্রবাহ কমেছে। নিয়মিত খরচ সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির মাধ্যমে আমরা পরিস্থিতির সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছি। তবে শত প্রতিকূলতার মধ্যেও আমরা সব কর্মীকে শতভাগ বেতন অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছি।

প্রতিকূলতা থাকলেও দেশের অর্থনীতিকে বাঁচিয়ে রাখতে, জীবিকার প্রয়োজনে উৎপাদন বিপণন কার্যক্রম চালু রাখতে হবে।

এখনো পর্যন্ত করোনাভাইরাসের কার্যকরী টিকা ওষুধ আবিষ্কৃত হয়নি। এটি করতে সময় লাগলে বর্তমান পরিস্থিতিকে মেনে নিয়ে আমাদের যাবতীয় কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে। করোনাকাল কেটে গেলে সামগ্রিক ব্যবসা পরিস্থিতি ভালো হবে। রপ্তানি বৃদ্ধি পাবে।

বাজেটে কৃষি, কৃষিসংশ্লিষ্ট, স্বাস্থ্য উৎপাদনশীল খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে। করপোরেট করহার কমাতে হবে। রপ্তানি বাড়াতে আরও প্রণোদনা দিতে হবে। রপ্তানিতে নতুন নতুন পণ্য যুক্ত করতে হবে।

আহসান খান চৌধুরী : চেয়ারম্যান সিইও, প্রাণ-আরএফএল